Home
বাংলাদেশে হিন্দু সংস্কৃতির জোয়ারঃ বাঙালী মুসলিম কি ভেসেই যাবে? PDF Print E-mail
Written by ফিরোজ মাহবুব কামাল   
Monday, 16 April 2018 05:21

বর্ষবরণের নামে পূজা

পূজা মন্ডপ এখন আর মন্দিরে নয়, ঢাকার রাজপথে নেমে এসেছে। নানা রংয়ের নানা জীব-জন্তুর মুর্তি মাথায় নিয়ে যারা মিছিলে নেমেছে তারাও কোন মন্দিরের হিন্দু পুরোহিত  বা হিন্দু পূজারি নয়। তারা নিজেদের পরিচয় দেয় মুসলিম রূপে। এ চিত্রটি এখন আর শুধু ঢাকা শহরের নয়, সরকারি খরচে সেটিই সারা বাংলাদেশ জুড়ে হচ্ছে। কথা হলো, এতে কি কোন মুসলিম খুশি হতে পারে? যার মনে সামান্যতম ঈমান অবশিষ্ঠ আছে তার অন্তরে তো এ নিয়ে বেদনাসিক্ত ক্রন্দন উঠতে বাধ্য। কারণ, এ তো কোন সুস্থ্য সংস্কৃতি নয়। নির্দোষ কোন উৎসবও নয়। এটি তো মহান আল্লাহতায়ালার বিরুদ্ধে বিদ্রোহের উৎসব। এটি তো সিরাতুল মুস্তাকীম ছেড়ে জাহান্নামের পথে চলা অসংখ্য মানুষের ঢল। এটি তো পৌত্তলিকদের পূজা মন্ডপ রাজপথে নামানোর মহা-উৎসব। এ উৎসব তো শয়তানের বিজয়ের। এবং সেটি মুসলিমদের রাজস্বের পয়সা। আরো পরিতাপের বিষয়, ইসলামের সংস্কৃতি ও অনুশাসনের বিরুদ্বে এ উদ্ধত শয়তানী বিদ্রোহের পাহারাদারে পরিণত হয়েছে দেশের পুলিশ ও প্রশাসন।

Read more...
 
অশিক্ষা ও কুশিক্ষার নাশকতা (পঞ্চম পর্ব) PDF Print E-mail
Written by ফিরোজ মাহবুব কামাল   
Sunday, 15 April 2018 09:48

শুরুটি শিক্ষাঙ্গণে

মানুষ কেন পানাহার করে –তা নিয়ে কারো দ্বিমত নেই। এর গুরুত্ব বুঝার জন্য কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিগ্রি নেয়ার প্রয়োজন নেই; নিরক্ষরগণও সেটি বুঝে। এমন কি পশুও বুঝে। কারণ পানাহারের সাথে বাঁচা-মরার সম্পর্ক। কিন্তু কেন পড়বো, কেন শিখবো, কি শিখবো এবং কতটা শিখবো -তা নিয়ে বিভেদ প্রচুর। কারণ, জ্ঞানার্জনের এ বিষয়টি সম্পৃক্ত বাঁচার সাথে নয়, বরং ‘কেন বাঁচবো’ এবং ‘কীরূপে বাঁচবো’ সে বিষয়টির সাথে। ‘কেন বাঁচবো’ এবং ‘কীরূপে বাঁচবো’ -সে বিষয়ে সবার ধারণা যেহেতু এক নয়, ফলে ভিন্নতা আসে শিক্ষার উদ্দেশ্য ও বিষয় নিয়ে। আমরা সবাই একই উদ্দেশ্যে পানাহার করি বটে; কিন্তু সবাই একই উদ্দেশ্যে ও একই ভাবে বাঁচি না। বাঁচার উদ্দেশ্য ও ধরণ জনে জনে ভিন্ন হওয়ার কারণে জ্ঞানার্জনের উদ্দেশ্যটিও ভিন্নতর হয়। ঈমানদার ও সেক্যুলারিস্টদের মাঝে শিক্ষা নিয়ে বিরোধটি এজন্যই অতি বিশাল। সেক্যুলারিস্টদের শিক্ষানীতিতে যেমন ঈমান বাঁচেনা, তেমনি ঈমানদারদের শিক্ষানীতিতে পুষ্টি পায় না সেক্যুলারিস্টদের চেতনা। তাই উভয়ের বাঁচা-মরার লড়াইটি স্রেফ রাজনীতির অঙ্গণে সীমিত নয়, তার চেয়েও গুরুতর ও চুড়ান্ত লড়াইটি হয় শিক্ষাঙ্গণে। শিক্ষাঙ্গণের লড়াইয়ে পরাজিত হলে অনিবার্য হয় রাজনৈতীক পরাজয়। এজন্যই বাংলাদেশসহ সকল মুসলিম দেশের সেক্যুলিরস্টগণ শিক্ষাঙ্গণের উপর থেকে তাদের দখলদারি ছাড়তে রাজি নয়। তারা নানা দলে বিভক্ত হলেও শিক্ষাঙ্গণে কোরআন-হাদীসের পাঠদান বন্ধে তাদের অটুট কোয়ালিশনটি আন্তর্জাতিক কাফের শক্তির সাথে।

Last Updated on Sunday, 15 April 2018 09:56
Read more...
 
The Bleeding Palestine: Support for the Brutalities & Approval of the Occupation PDF Print E-mail
Written by Dr Firoz Mahboob Kamal   
Sunday, 17 December 2017 20:15

Outsourcing the occupation

Palestine is bleeding. Its people are the worst victims of one of the most brutal occupations in the whole human history. They are suffering for more than hundred years. Firstly, at the hand of the British colonialists; and now under the occupation of Israeli aggressors. Under the Israeli occupation, Palestine has turned to a huge concentration camp for its native people; but only with a difference. The concentration camp in Nazi Germany was very short lived. It quickly ended with the end of World War II. But the Israeli concentration camp is showing no such sign of ending in foreseeable future; rather, showing rejuvenated life with more brutalities. Colonization always brought brutal occupation, oppression, exploitation and deaths in the occupied lands of Asia and Africa. But the colonial occupation of Palestine has taken a different and more awful route. Half of the people in any of the former colonies were never forced to live in the refugee camps of other countries. Nor were their land and assets confiscated by the thuggish immigrants from other corners of the planet to build their own empire –as have been done in Palestine by the Jewish immigrants.

Last Updated on Sunday, 17 December 2017 20:25
Read more...
 
অশিক্ষা ও কুশিক্ষার নাশকতা (চতুর্থ পর্ব) PDF Print E-mail
Written by ফিরোজ মাহবুব কামাল   
Sunday, 01 April 2018 06:46

শিক্ষাঙ্গণঃ বধ্যভূমি ঈমানের

মহান আল্লাহতায়ালার পক্ষ থেকে যে জ্ঞান সরাসরি মানুষকে দেয়া হয় সেটিই হলো ওহীর জ্ঞান সে জ্ঞানই লিপিবদ্ধ করা হয়েছে পবিত্র কোরআনে পূর্বে সে জ্ঞান দেয়া হয়েছিল তাওরাত, ইঞ্জিল ও যব্বুরে চারটি আসমানি কিতাবের বাইরেও ওহীর জ্ঞান লাগাতর দেয়া হয়েছে লক্ষাধিক নবী-রাসূলের মাধ্যমে সেটি মানব সৃষ্টির শুরু থেকেই তাই হযরত আদম (আঃ) শুধু প্রথম মানবই নন, প্রথম নবীও কারণ, মানব রূপে বেড়ে উঠার জন্য স্রেফ দেহ জরুরী নয়, অপরিহার্য হলো ওহীর জ্ঞান মানবজাতির জন্য মহান আল্লাহতায়ালার পক্ষ থেকে এ জ্ঞানই হলো সর্বশ্রেষ্ঠ দান পানাহার পশুপাখিও পায়; কিন্তু মানুষজাতির জন্য করুণাময় স্রষ্টার অতি বিশেষ ও সর্বশ্রেষ্ঠ রহমত হলো ওহীর জ্ঞান মানুষ সর্বশ্রেষ্ঠ সৃষ্টিতে পরিণত হয় সে ওহীর জ্ঞানে, দৈহিক বল বা সৌন্দর্যে নয় এ জ্ঞানের বলেই মানুষ নিজেকে জান্নাতের উপযোগী করে গড়ে তোলে নইলে মানব সন্তান শুধু পশু নয়, পশুর চেয়েও নিকৃষ্টতর জীবে পরিণত হয় পশু জগতে গণনিধন নাই, জাতি বা প্রজাতি নির্মূল নাই, সমকামিতাও নাই অথচ পশু থেকেও যারা নীচে নামে তাদের জীবনে শুধু এরূপ পাপাচারই থাকে না, তার চেয়েও জঘন্য অপরাধ প্রবনতা থাকে মানুষ সে ইতর স্তরটিতে পৌঁছে দৈহিক পঙ্গুত্বের কারণে নয়, সেটি ঘটে অসুস্থ্য বা মৃত ঈমানের কারণে এবং ঈমান অসুস্থ্য হয় বা মারা পড়ে পানাহারে কমতিতে নয়, বরং ওহীর জ্ঞান না থাকাতে প্রতিটি মানবের উপর তাই সবচেয়ে বড় দায়ভারটি স্রেফ ঘরবাঁধা ও পানাহার সংগ্রহ নয়; সেটি হলো, ওহীর জ্ঞানে নিজে আলোকিত হওয়া, সে সাথে অন্যদেরকেও আলোকিত করা একমাত্র সে আলোতেই সম্ভব সিরাতুল মুস্তাকীমে চলা ও উচ্চতর সভ্যতার নির্মাণ

Last Updated on Tuesday, 03 April 2018 05:51
Read more...
 
Reign of Pure Immorality in Myanmar: Does Rohnigya Life Matter? PDF Print E-mail
Written by Dr Firoz Mahboob Kamal   
Sunday, 03 December 2017 23:29

The immorality & the calamities

Commission of a crime never owes to any physical disability of the perpetrator. It is an evil expression of his or her wicked immorality. In presence of extreme immorality, such crime turns terribly barbaric and genocidal. The genocidal ethnic cleansing of the Rohingya Muslims in Myanmar is indeed a sure diagnostic marker of such moral ill-health. The man-eating animals do not possess any moral compass; hence, killing humans isn’t considered a crime in the animal kingdom. So, no animal gets condemned for that. The same norm of animal kingdom overwhelms a country’s politics, religion, culture and warfare if the people with moral deprivation become ruler, religious leader or commander of the Army. Then, arson, rape, torture, murder and forceful eviction become the parts of politics, religion and culture. That has exactly happened in Myanmar. As a result, in last 3 months, more than six hundred thousand Rohingya Muslims have been evicted, more than three thousands have been killed, hundreds of Rohingya women are raped and more than half of the Muslim villages are torched down to ashes.

Read more...
 
<< Start < Prev 1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 Next > End >>

Page 4 of 46
Dr Firoz Mahboob Kamal, Powered by Joomla!; Joomla templates by SG web hosting
Copyright © 2018 Dr Firoz Mahboob Kamal. All Rights Reserved.
Joomla! is Free Software released under the GNU/GPL License.