Home
লুণ্ঠিত স্বাধীনতা ও ভারতের প্রতি দায়বদ্ধতার রাজনীতি PDF Print E-mail
Written by ফিরোজ মাহবুব কামাল   
Wednesday, 01 August 2018 18:47

গণতন্ত্রহীন নির্বাচন ও লুণ্ঠিত স্বাধীনতা

স্বাধীনতার অর্থ নিজের অধীনতা; সে স্বাধীন অঙ্গণে অন্যের কর্তৃত্ব থাকে না। এবং অন্যের অধীনতাকে বলা হয় পরাধীনতা। তবে স্বাধীনতার অঙ্গনটি স্রেফ চলাফেরা, পানাহার, ঘরবাধা ও সন্তান পালনের ক্ষেত্রে সীমিত নয়। স্বাধীনতা থাকতে হয় রাজনীতি, ধর্মপালন, মতপ্রকাশ এবং শিক্ষাসংস্কৃতির অঙ্গণেও। স্বাধীনতার অর্থ তাই স্রেফ মানচিত্র বা পতাকা থাকা নয়। সেটি যাকে ইচ্ছা তাকে ভোট দিয়ে ক্ষমতায় বসানো এবং ভোট না দিয়ে ক্ষমতা থেকে নামানোর অধীকারও। সেরূপ অধীকার না থাকার অর্থই পরাধীনতা। নির্বাচন হলো জনগণের সে অধীকার নিজের ইচ্ছামত প্রয়োগের সভ্য প্রক্রিয়া। সে সভ্য প্রক্রিয়ায় অসভ্য হস্তক্ষেপ হলে গণতন্ত্র বাঁচে না। ভোট ছিনতাইয়ের অর্থ তাই জনগণের স্বাধীনতা ছিনতাই। এবং যে দেশে স্বাধীনতা ছিনতাই হয় সে দেশে বার বার নির্বাচন হলেও সেটিকে গণতন্ত্র বলা যায় না। বরং তাতে দেশজুড়ে প্রতিষ্ঠা পায় চুরি-ডাকাতি ও ভোট ডাকাতির অসভ্যতা। এমন ভোট-ডাকাতদের হাতে অধিকৃত হওয়ায় বাংলাদেশে মারা পড়েছে স্বাধীন ভাবে কথা বলা, মিটিং-মিছিল করা ও পত্রিকা প্রকাশের স্বাধীনতা। এমন মৃত গণতন্ত্রের দেশে নির্বাচন পরিণত হয়েছে রাষ্ট্রের সহায়-সম্পদের উপর ডাকাতির হাতিয়ারে। জনগণ কাদেরকে ক্ষমতায় বসাতে চায় সেটি জানতে তাই নির্বাচন হয় না, বরং নির্বাচনের নামে প্রহসন  হয় ভোট-ডাকাতদের মাথায় বিজয়ের মুকুট পরাতে।

Last Updated on Thursday, 02 August 2018 18:53
Read more...
 
বাংলাদেশে স্বৈরাচারের অধিকৃতি ও মৃত গণতন্ত্র PDF Print E-mail
Written by ফিরোজ মাহবুব কামাল   
Sunday, 15 July 2018 16:55

মৃত গণতন্ত্র

বাংলাদেশের মাটিতে গণতন্ত্র নির্মূলের যুদ্ধটি প্রথম শুরু করেন শেখ মুজিব। সে যুদ্ধে তিনি বিজয় লাভ করেন একদলীয় বাকশালের প্রতিষ্ঠা ও বহুদলীয় গণতন্ত্রকে কবরে পাঠানোর মধ্য দিয়ে। শেখ মুজিবের মৃত্যু ঘটেছে। কিন্তু গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের যুদ্ধ থামেনি। বরং সে যুদ্ধের ধারাবাহিকতায় বাকশালী চেতনা বাংলাদেশের রাজনীতিতে আজ শুধু জীবিত নয়, এক বিজয়ী আদর্শে পরিণত হয়েছে। চলমান এ যুদ্ধে তাদের প্রতিপক্ষ হলো জনগণ। তাদের লক্ষ্য স্রেফ দেশকে অধিকৃত রাখা নয়, জনগণকে পরাজিত এবং নিরস্ত্র রাখাও। আরো লক্ষ্য হলো, তাদের বিদেশী  প্রভু ভারতকে খুশি রাখা। স্বৈরশাসকগণ জানে, জনগণের মোক্ষম  অস্ত্রটি ঢাল-তলোয়ার বা গোলাবারুদ নয়, সেটি হলো ভোট। সে ভোট দিয়েই জনগণ তাদের ইচ্ছামত কাউকে ক্ষমতায় বসায়, কাউকে নামায় এবং কাউকে আস্তাকুঁড়ে ফেলে। গণতন্ত্রে জনগণের শক্তি তাই বিশাল। এ শক্তিবলে বড় বড় স্বৈরশাসককে জনগণ অতীতে আস্তাকুঁড়ে ফেলেছে। এজন্যই প্রতিটি স্বৈরশাসক গণতন্ত্রকে ভয় পায়। তারা জনগণের ভোটে ক্ষমতাচ্যুৎ হওয়া থেকে বাঁচতে চায়। তাদের লক্ষ্য তাই জনগণের হাত থেকে ভোটের অধিকার কেড়ে নেয়া। ফলে  স্বৈরশাসক মাত্রই গণতন্ত্রের চিরশত্রু। স্বৈরতন্ত্র ও গণতন্ত্র –এ দুটি কখনোই একই ভূমিতে একত্রে বাঁচে না; একটির বাঁচা মানেই অপরটির মৃত্যু। জনগণের ভোটের অধিকার, মিছিল-মিটিং করার অধিকার ও মৌলিক মানবিক অধীকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও নৃশংস সহিংসতা ছাড়া স্বৈরশাসনের মৃত্যু তাই অনিবার্য়। গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে আওয়ামী বাকশালীদের লাগাতর ষড়যন্ত্র ও যুদ্ধের মূল কারণ তো এটিই।

Last Updated on Sunday, 15 July 2018 17:11
Read more...
 
Enforced Indebtedness to India & the Politics of Appeasement in Bangladesh PDF Print E-mail
Written by firozkamal   
Saturday, 23 June 2018 14:02

The on-going war against democracy

There are only two visible powers in the political landscape of Bangladesh: the people of Bangladesh and the government of India. The political history of Bangladesh is indeed mostly the history of clash of these two powers. Before 1971, India had its incessant war to demolish the arch enemy Pakistan in its eastern wing. After India’s victory in 1971, Pakistan’s war has ended. But India’s war hasn’t. Rather, it has received a new life, new objective and a new game-plan against a new enemy in this strategic land so crucial to India’s destiny. Here, the Indian war is to crush the democratic aspiration of 170 million people of Bangladesh. Moreover, such a war has never been new in India; it is already continuing for 70 years in Kashmir and in its north-eastern provinces. And, it shows no sign to end in the near future.

Last Updated on Saturday, 23 June 2018 15:21
Read more...
 
বাংলাদেশে স্বৈরাচারের নাশকতা ও বাঙালী মুসলিমের ব্যর্থতা PDF Print E-mail
Written by ফিরোজ মাহবুব কামাল   
Sunday, 08 July 2018 01:30

স্বৈরাচারঃ দুশমন মানব সভ্যতার

স্বৈরশাসকদের নৃশংস অপরাধ শুধু এ নয়, বিপুল সংখ্যায় তারা মানুষ খুন করে, গুম করে ও নির্যাতন করে। বরং সবচেয়ে বড় অপরাধটি ঘটে মহান আল্লাহতায়ালার নির্দেশিত সনাতন সত্যদ্বীন নির্মূলে। অপরাধ, মানুষের বিবেক নিধনের ক্ষেত্রেও। স্বৈরশাসকের নাশকতাটি তাই হিংস্র পশু ও প্রাণ-নাশক জীব-জীবাণুর চেয়েও ভয়াবহ। কারণ, ঘাতক পশু ও জীব-জীবাণু ইসলাম ও ঈমানের শত্রু নয়। তাদের কাজ স্রেফ দৈহিক হত্যা; বিবেক হত্যা বা ঈমান হত্যা নয়। তাই হিংস্র পশু ও জীব-জীবাণুর নাশকতা বৃদ্ধিতে মানুষ জাহান্নামে যায় না; জাহান্নামে যাওয়ার কারণ তো ঈমানের মৃত্যু এবং সৎ আমলের শূণ্য ভাণ্ডার। সেটি ঘটে স্বৈরশাসকদের হাতে দেশ অধিকৃত হওয়ায়। অসত্য ও অন্যায়ের প্রতিষ্ঠাকে প্রবলতর করে তারা অসম্ভব করে সুস্থ্য ঈমান-আক্বীদা, শিক্ষা-সংস্কৃতি, ন্যায়নীতি ও নেক আমল নিয়ে বেড়ে উঠা।

Last Updated on Friday, 20 July 2018 23:13
Read more...
 
Why Should Muslims Participate in Elections? PDF Print E-mail
Written by Dr Firoz Mahboob Kamal   
Wednesday, 20 June 2018 20:48

Power of Vote and the old debate

A debate on election has divided the already divided Muslim community in the UK. Some groups have labelled it haram - a divine prohibition. They have proclaimed fatwas that any participation in elections is shirk. Their central point is based on the argument that Allah (SWT) is the only lawmaker, and so Muslims cannot take part in forming a parliament that is not based on his laws. To them, it is not only haram in a non-Muslim country like UK, but also in any notionally Muslim country like Bangladesh, Pakistan, Malaysia, Turkey, Indonesia and others. So the question arises, should the Muslims survive as mere observers of politics, as is the norm in many autocratic Muslim countries like Saudi Arabia, Syria, Jordan, Kuwait, Qatar and others? Ironically, most of the people propagating this fatwa, are born in those middle-east countries and are more in tune with autocratic legacies. Rather, the ulamas in Bangladesh, Pakistan, Malaysia, Turkey, Indonesia, India, Sudan and Algeria are not only participating in elections, but also are taking part in forming governments.

 

Read more...
 
<< Start < Prev 1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 Next > End >>

Page 2 of 46
Dr Firoz Mahboob Kamal, Powered by Joomla!; Joomla templates by SG web hosting
Copyright © 2018 Dr Firoz Mahboob Kamal. All Rights Reserved.
Joomla! is Free Software released under the GNU/GPL License.